করোনা কে ছড়াল, জানালে মিলছে পুরস্কার নগদ অর্থ

করোনা কে ছড়াল, জানালে মিলছে পুরস্কার নগদ অর্থ

চীনের একটি শহরে নতুন করে করোনার প্রকোপ শুরু হয়েছে। সংক্রমণের উৎস খুঁজে পাচ্ছে না কর্তৃপক্ষ। তবে তারা বসে নেই। কার মাধ্যমে নতুন করে আবার করোনার প্রকোপ, তা জানতে মরিয়া কর্তৃপক্ষ এক অভিনব পন্থা নিয়েছেন। যে কেউ সংক্রমণের উৎস জানাতে পারলে লাখ লাখ টাকা নগদ অর্থ পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

এএফপির খবরে বলা হয়েছে, চীনে উৎপত্তির পর গোটা বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছিল করোনা। তবে দেশটি কঠোর পদক্ষেপ নিয়ে করোনা সংক্রমণের লাগাম টেনে ধরে। কর্তৃপক্ষ বলছে, গত কয়েক মাসে সবচেয়ে বড় আকারের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছে ওই শহরে। সংক্রমণ ঠেকাতে ‘জনযুদ্ধের’ অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নিয়েছে তারা। তবে শহরটির নাম প্রকাশ করা হয়নি এএফপির খবরে।


চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে আজ মঙ্গলবার নতুন করে ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরা সবাই স্থানীয়ভাবে করোনায় আক্রান্ত। আবার এই প্রকোপ দেখা দিয়েছে করোনার অতিসংক্রামক ধরন ডেলটার কারণে। প্রদেশ ও অঞ্চল মিলে মোট ২০টি সংক্রমণ বৃদ্ধিতে ৩ সপ্তাহ ধরে শনাক্ত দুই অঙ্কের ঘরে।

করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় অনেক দেশ কোভিড–সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। কিন্তু করোনা শনাক্তের সংখ্যা শূন্যে নামিয়ে আনার কৌশলেই বদ্ধপরিকর বেইজিংয়ের কর্মকর্তারা। সীমান্ত বন্ধ করে রাখা, নির্দিষ্ট এলাকায় কঠোর বিধিনিষেধ ও দীর্ঘ সময় কোয়ারেন্টিনের থাকার কারণে তারা বেশ সফল।


তবে এখন দেশটির ৪০টির বেশি শহরে নতুন করে করোনার প্রকোপ শুরু হয়েছে। এমন একটি শহর রাশিয়ার সঙ্গে সীমান্ত লাগোয়া হেইহে। শহরটির কর্মকর্তারা বলছেন, নতুন করে করোনার প্রকোপের উৎস জানতে চান তাঁরা। কেউ এই সংক্রান্ত তথ্য দিতে পারলে ১ লাখ ইউয়ান বা ১৫ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে।

নগর কর্তৃপক্ষ এ–সংক্রান্ত একটি নোটিশ দিয়েছে। তাতে করোনার উৎসের সন্ধান দিলে পুরস্কার দেওয়ার কথা বলা হয়। নোটিশে আরও বলা হয়েছে, ভাইরাসটির নতুন করে শুরু হওয়া প্রাদুর্ভাবের উৎস কোথায়, তা যা যত দ্রুত সম্ভব উদ্‌ঘাটন করতে হবে। মহামারি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে জনযুদ্ধের অংশ এই পদক্ষেপ।