১০০০ কোটির মালিক মোবাইল অ্যাপ বানিয়েই

১০০০ কোটির মালিক মোবাইল অ্যাপ বানিয়েই
সংগৃহীত ছবি

যে বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পেরিয়ে সবাই কর্মক্ষেত্রে বিচরণের স্বপ্ন দেখেন, সেই বয়সেই কি না ১০০০ কোটি টাকার মালিক। তাও আবার নিজের চেষ্টায় ধনকুবের বনে গেছেন এই তরুণ।

ভারতের সর্বকনিষ্ঠ ধনকুবেরের তকমা পেয়েছেন শাশ্বত নকরানি মাত্র ২৩ বছর বয়সেই। সম্প্রতি আইআইএফএল ওয়েল্থ হুরান ইন্ডিয়া’র ধনীর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন।


শুধু শাশ্বত নন, তার মতো আরও ১৩ তরুণ ওই দেশের ধনীর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন। লেনদেনের অ্যাপ বানিয়েই হাজার কোটির মালিক হয়েছেন এই তরুন উদ্যোক্তা।

তিনি অনলাইন লেনদেনের অ্যাপ ‘ভারতপে’র সহ প্রতিষ্ঠাতা। ফেসবুকের জনক মার্ক জুকারবার্গ কিংবা মাইক্রোসফট এর প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের মতো ভারতের শাশ্বতও কলেজের পাঠ শেষ করেননি।

২০১৫ সালে টেক্সটাইল প্রযুক্তি নিয়ে পড়াশোনার জন্য দিল্লি আইআইটিতে ভর্তি হন শাশ্বত। তবে তার স্বপ্ন ছিলো নিজে অ্যাপ তৈরি করবেন। সেই আশায় তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষার আগেই কলেজ ছেড়ে দেন।


২০১৮ সালে আসনীর গ্রোভার ও ভাবিক কোলাদিয়ার সঙ্গে মিলিত চেষ্টায় ‘ভারতপে’ অ্যাপ বাজারে নিয়ে আসেন। এই সংস্থার গ্রুপ প্রোডাক্ট হেড হন।

সম্প্রতি ১০০৭ জন উদ্যোক্তার উপর সমীক্ষা চালায় আইআইএফএল ওয়েল্থ হুরান ইন্ডিয়া। তাদের সবার মধ্যেই কনিষ্ঠতম ধনকুবের হলেন শাশ্বত।


শাশ্বতর অ্যাপ ‘ভারতপে’ ব্যবসায়ীদের কাছে বহুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এই অ্যাপের কিউআর কোড এর মাধ্যমেই পেটিএম, ফোনপে, গুগলপে, ভিমসহ ১৫০টিরও বেশি ইউপিআই মাধ্যমে লেনদেন করা যায়।

শাশ্বতর ধনকুবের হওয়ার ঘটনা সবাইকেই চমকে দেয়। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো, একেবারে জিরো থেকে হিরো বনে গেছেন তিনি।


তিনি সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টায় ধনকুবের হয়েছেন। বর্তমানে এই কনিষ্ঠ ধনকুবের অন্তত ১০০০ কোটি টাকার মালিক।

সূত্র: লাইভমিন্ট/হিন্দুস্তান টাইমস/ইন্ডিয়াডটকম