ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি: নতুন ভোটার হতে যা লাগবে ২০২২

বাংলাদেশের সকল বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটের তথ্য হালনাগাদ ২০২২, ভােটার তালিকা হালনাগাদ -২০২২ইং, সারা দেশব্যাপী আগামী ২০/০৫/২০২২ ইং থেকে পরবর্তী ৩ সপ্তাহ।, বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভােটার তালিকা হালনাগাদ করা হবে। নতুন ভােটার হইতে যা যা লাগবে, প্রথম ধাপে ১৪০ উপজেলায়

ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি: নতুন ভোটার হতে যা লাগবে ২০২২
নতুন ভোটার তালিকা হালনাগাদ

নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী গত শুক্রবার (২০ মে ২০২২) থেকে সারাদেশে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তথ্য সংগ্রহ ও সুপারভাইজার কর্তৃক যাচাই কার্যক্রম ২০ মে থেকে পরবর্তী ৩ সপ্তাহ পর্যন্ত অথবা শুরুর তারিখের পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হবে।



বাসায় গিয়ে ভোটের হালনাগাদ ২০২২
 
ভােটার তালিকা হালনাগাদ -২০২২ইং
 
সারা দেশব্যাপী আগামী ২০/০৫/২০২২ ইং থেকে পরবর্তী ৩ সপ্তাহ।
 
বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভােটার তালিকা হালনাগাদ করা হবে।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন । Bangladesh Election Commission

ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি, ২০২২ উপলক্ষে রেজিস্ট্রেশন অফিসার নিয়োগ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন ডাউনলোড লিংক

নতুন ভোটার হতে বেশকিছু কাগজপত্র লাগবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম-সচিব (চলতি দায়িত্ব) এস এম আসাদুজ্জামান।
নতুন ভােটার হইতে যা যা লাগবে । 
 
  • জম্ম সাল সর্বনিম্ন ২০০৭ হতে হবে
  • অনলাইন জম্ম নিবন্ধনের ফটোকপি
  • পিতা/মাতার আইডি (NID) ফটোকপি
  • স্বামী/স্ত্রীর আইডি ফটোকপি।
  • শিক্ষা সনদের ফটোকপি
  • রক্তের গ্রুপ পরিক্ষার সার্টিফিকেট
  • হােল্ডিং টেক্স রিসিটের ফটোকপি

তিনি জানান, নিবন্ধনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পূরণকৃত নিবন্ধন ফরম-২ এর সাথে অনলাইন জন্ম সনদ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) অথবা এসএসসি বা সমমান পরীক্ষা বা যেকোনো পাবলিক পরীক্ষা পাসের সনদের ফটোকপি; নাগরিক সনদ, প্রত্যয়নপত্র/বাড়ি ভাড়া/হোল্ডিং ট্যাক্স/যেকোনো ইউটিলিটি বিল পরিশোধের রসিদের কপি জমা দিয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

 
অনুসরনী বিষয়ঃ যাদের জম্ম সনদ অনলাইনে নেই, তারা দ্রুত জম্ম সনদ অনলাইন করে নেন। 

প্রথম ধাপে ১৪০ উপজেলায় কি
 
ভোটার হালনাগাদ বাড়ি বাড়ি গিয়ে হবে তথ্য সংগ্রহ দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে দেশব্যাপী ভোটার তালিকা যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এ ক্ষেত্রে প্রথম ধাপে ১৪০ উপজেলায় করবে। নির্বাচন কমিশন তথ্য হালনাগাদ ২০২২ কার্যক্রম শুরু করতে উপজেলায় প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবে। এরপরে পর্যায়ক্রমে চলবে ছবি তোলা ৩ ভোটার নিবন্ধনের কার্যক্রম। 
 


সংগ্রহের জন্য ১৪০ উপজেলায় ইসির প্রকাশিত হালনাগাদ কর্মসূচিতে প্রথম ধাপে তথ্য নাম বাছাই করা হয়েছে। প্রথম ধাপে তথ্য সংগ্রহ করা হবে এমন উপজেলাগুলো হলো- পঞ্চগড় সদর, ঠাকুরগাঁও সদর, দিনাজপুরের সদর ও নবাবগঞ্জ। নীলফামারীর সদর ও ডিমলা। লালমনিরহাট সদর, রংপুরের সদর ও পীরগঞ্জ। কুড়িগ্রামের সদর ও রৌমারী। গাইবান্ধার সদর ও ফুলছড়ি। জয়পুরহাট সদর, বগুড়ার সদর, দুপচাঁচিয়া ও সারিয়াকান্দি। চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট।
নওগাঁর সদর, পোরশা ও বদলগাছী। রাজশাহীর বোয়ালিয়া ও রাজপাড়া। নাটোরের সদর ৩ সিংড়া। সিরাজগঞ্জের সদর ও তাড়াশ। পাবনার সদর ও ঈশ্বরদী। মেহেরপুর সদর, কুষ্টিয়া সদর ও কুমারখালী। চুয়াডাঙ্গা সদর, হরিণাকুন্ডু। যশোরের সদর, অভয়নগর ও বাঘারপাড়াসহ ১৪০ উপজেলায় প্রথম ধাপের তথ্য সংগ্রহ করবে ইসি। তবে এ ১৪0 উপজেলার নাম ইসির নিজস্ব ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। 
 
 আরও পড়ুনঃ

পুলিশ কর্মকর্তাকে কামড়ে দিল রিকশাচালক



জেলা ও উপজেলা নির্বাচন ব কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে- এবার তিন বছরের তথ্য একসঙ্গে সংগ্রহ করা হবে। 
 
এ ক্ষেত্রে ২০০৭ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে জন্মগ্রহণকারীদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। অর্থাৎ ১৬ বছর বয়সীদের তথ্যও নেওয়া হবে। 
 
যারা পরবর্তীতে বয়স ১৮ বছর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভোটার তালিকায় তাদের নাম যুক্ত হয়ে যাবে। তারা ভোটার তালিকায় যুক্ত হবে ২০২৪ ও ২০২৫ সালে।


 
ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী, প্রথম পর্যায়ে ১৪০ উপজেলায় কার্যক্রমটি শুরু হবে তিন সপ্তাহের জন্য। 
 
এ কর্মসূচিতে ভোটার তালিকা থেকে মৃত ভোটারের নাম কর্তন এবং আবাসস্থল পরিবর্তনের কারণে ভোটার এলাকা স্থানান্তরের কাজও চলবে।
 
বর্তমানে ইসির নিবন্ধনে ১১ কোটি ৩২ লাখ ৯১ হাজার ৭৬৯ জন ভোটার রয়েছেন। এদের মধ্যে নারী ভোটার ৫ কোটি ৫৫ লাখ ৯৮ হাজার ২৯৬ জন, পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ৭৬ লাখ ৯৩ হাজার ১৯ জন এবং হিজড়া ভোটার রয়েছেন ৪৫৪ জন।
সংগৃহীত পোস্ট